আজ : বৃহস্পতিবার | ৭ই আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২১শে জুন, ২০১৮ ইং | ৭ই শাওয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

‘মাদকের ব্যপারে কোন আপোস নেই’

এডিটর ডেস্ক : দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রানমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম এমপি বলেছেন, মাদকের কারনে যুবসমাজের একটি আংশ আজ ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। কিছু দুষ্টু লোকের কারনে এসব হচ্ছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা মাদক প্রতিরোধের ব্যপারে সর্বোচ্চ আন্তরিক। কাজেই মাদকের ব্যপারে কোন ধরনের আপোষ নেই। মাদক প্রতিরোধে সমাজের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষকে এক হয়ে কাজ করতে হবে।

বুুধবার দুপুরে মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপুরের নিজ বাসভবনে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের সঙ্গে ঈদপূর্বক মতবিনিময়কালে তিনি একথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মতলব উত্তর ও মতলব দক্ষিন উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্ঠা বীনা চৌধুরী, মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড. রুহুল আমীন, সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস, মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার, মতলব দক্ষিন উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহিদুর রহমান, সহকারী কমিশনার (ভুমি) শুভাশিষ রায়, মতলব দক্ষিন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিএইচএম কবির আহমদ, চাঁদপুর জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম হাওলাদার, মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নিলুফা আক্তার, মতলব উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান কল্যান সমিতির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শামছুর হক চৌধুরী বাবুল, মতলব উত্তর উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পারভীন শরীফ, মতলব দক্ষিন উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের আসমা আক্তার আখিসহ মহিলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার নেতৃবৃন্দ।

বিএনপির উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, জ্বালাও-পোড়াও আন্দোলন, এতিমের টাকা লুট-পাট, বিদেশীদের কাছে গিয়ে অহেতুক নালিশ ও নাগরিকত্ব নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টিকারীদের বাংলার জনগণ ভাল করেই চেনে। বাংলার জনণে উন্নয়নে বিশ্বাস করে। উন্নয়নের স্বার্থে তারা আবারো আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় দেখতে চায়। সামনে পবিত্র ঈদুল ফিতর সকলের জন্য আনন্দের দিন। এই আনন্দের মধ্যে কোনও ধরনের বিশৃংখলা সৃষ্টির চেষ্টা করলে তাদের কঠোরভাবে জবাব দেওয়া হবে।

মন্ত্রী মতলবের দুই উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের নেতৃদের মাধ্যমে স্থানীয় দরিদ্র ও অসহায় মহিলাদের ঈদ করার জন্য মন্ত্রী তাঁর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে নগদ অর্থ প্রদান করেন। এছাড়া কয়েক সহস্রাধিক অসহায় ও দরিদ্র মহিলাদের মাঝে শাড়ি কাপড় বিতরণ করেন।

মতলবের উন্নয়ন সম্পর্কে মায়া চৌধুরী বলেন, রাস্তা-ঘাট পাকাকরণ, ব্রিজ-কালভার্ট নির্মান, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন নতুন পাকা ভবন নির্মান, রাস্তা-ঘাট আলোকিত করতে বসছে সৌর বিদ্যুৎ, ভুমিহীনদের জন্য নির্মিত হচ্ছে আশ্রয়ন প্রকল্প। এ উপজেলার চরাঞ্চলে অর্থনৈতিক জোন, আধুনিক বীজাগার, হচ্ছে আইসিটি পার্ক । আর নির্মানের শেষের দিকে শতাধিক কোটি টাকার মতলব সেতুর কাজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ