আজ : শুক্রবার | ১লা পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং | ২৭শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

পর্যটকদের স্বাগত জানাতে প্রস্তুত সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান

s uddanএডিটর ডেস্ক : ঈদুল ফিতরের ছুটিতে পর্যটকদের ঢল নামবে হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলায় অবস্থিত সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে। পর্যটকদের স্বাগত জানাতে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে উদ্যান ব্যবস্থাপনা কমিটি। সাতছড়ি ব্যবস্থাপনা কমিটির দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা তুহিন আহমেদ জানান, ঈদের ছুটিতে কয়েক লাখ টাকা রাজস্ব আদায় হবে। ঈদের ছুটির তিনদিনে শুধু হবিগঞ্জ নয়, দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে হাজার হাজার পর্যটকের সমাগম হবে এ উদ্যানে। প্রতি বছরই এ উদ্যানে ঈদের ছুটিতে পর্যটকদের ঢল নামে।

হবিগঞ্জের নাগরিকদের কাছে ঘোরার জন্য পছন্দের স্থান হলো সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান। শুধু হবিগঞ্জ নয়, বি-বাড়ীয়া, নরসিংদীসহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলো থেকেও পর্যটকরা আসেন এখানে। এখানকার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আর পাখ-পাখালির কিচির-মিচির শব্দে আনন্দেই সারাদিন পার্কে কাটাতে পারেন পর্যটকরা।

ঈদকে সামনে রেখে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে রীতিমত মেলা বসবে। অনেক ব্যবসায়ী পণ্য বিক্রির জন্য সেখানে শেড তৈরি করেছেন। হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট উপজেলার রঘুনন্দন হিল রিজার্ভে ৬ দশমিক ২শ’ ৫ হেক্টর সংরক্ষিত বনভূমির অভ্যন্তরে ২৪৩ হেক্টর ভূমি নিয়ে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানটি ২০০৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। জীব বৈচিত্র্যে সমৃদ্ধ এ বনাঞ্চলটি নান্দনিক সৌন্দর্যের জন্য পর্যটকদের কাছে অত্যন্ত আকর্ষনীয়। বিশেষ করে পাখি প্রেমিকদের জন্য এটি একটি স্বপ্নভূমি।

এ উদ্যানে রয়েছে চাপালিশ, শিমুল, বেলপুই শেওড়া, পামসহ ২০৮ প্রজাতির উদ্ভিদ। সাতছড়ি শব্দটি রক্ষিত এলাকার ভিতর দিয়ে সাতটি প্রবাহমান জলধারাকে নির্দেশ করলেও কালের বিবর্তনে তা হারিয়ে গেছে। এদিকে ঈদ উপলক্ষে হবিগঞ্জে চুনারুঘাট উপজেলার রেমা-কালেঙ্গা জাতীয় উদ্যান ও চন্ডিচড়া চা বাগানেও পর্যটকদের আগমন ঘটে। পাশাপাশি হাওর এলাকায় নৌকা নিয়েও বেড়িয়ে পড়ার সুযোগও রয়েছে পর্যটকদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ